slideshow 1 slideshow 2 slideshow 3

You are here

প্রতিবাদ

জ্বলি ন উদিম কিত্তায় ?

পনেমালা অজ পাড়া গাঁ মাটিরাঙ্গার বগাছড়ির মেয়ে । সে পাহাড়ি রাস্তার মুক্ত বাতাসে ঘুরে বেড়ায় । জুমের ফসল তোলা, কাঁকড়া, চিংড়ি মাছ ধরা, মাঝে মাঝে গরু চড়াতে চড়াতে আনমনা হয়ে আকাশ পাতাল ভাবা তার নিত্য দিনের অভ্যাস । এই ১৫ বছরে সে ক্লাস সিক্সে পড়ে । মাঝে মাঝে পাড়ার ক্লাবে পেপার পত্রিকাও পড়ে । আজকাল লোকাল পত্রিকা খুললে চোখে পড়ে ধর্ষন বলে কি ঘটে তার মত বয়সী মেয়েদের সাথে । সে একবার এক বড় দিদিকে জিজ্ঞেস করে ধর্ষন কি ? দিদির উত্তর তার গায়ে কাটা দেয় । প্রায় প্রতিদিনের কাজের ঝামেলায় আবার ভুলে যায় সে। তবে সে আজকাল সে আত্মরক্ষার জন্য দা সাথে রাখে বলা যায় না কখন কি বিপদ হয়।

ব্লগার আটকের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ

ব্লগারদের আটক করার মাধ্যমে সরকার মুক্ত চিন্তার উপর আঘাত হানতে শরু করেছে। আমি একজন ব্লগার হিসেবে সরকারের এ ধরনের পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে আটক ব্লগারদের মুক্তির দাবি জানাচ্ছি।

শাহবাগ থেকে বলছি

শাহবাগ থেকে বলছি

চোখের থেকে চশমা সরাও-
হটিয়ে দেখো ঝাপসা চাদর;
স্বাধীন দেশে কোন কারণে
দালাল পেলো জামাই আদর?

চারটি দশক মাভৈ মাভৈ -
করাচিও নয়, নয় লাহোর!
খুনীর শ্বাসের টানলো বোঝা
বধ্যভূমির সাক্ষী শহর?

এদিক-ওদিক অনেক হোলো,
শব্দজটে বাজলো কত চাচার সানাই!
এখন একটা দাবির তীক্ষ্ম স্লোগান-
শোনো? "কঠিনতম শাস্তি চাই"।

এতদিনের হেলায় ভরা পাপের দাগ
মুছবে বলে জাগলো দেখো শাহবাগ
মিছিল হয়ে ভাসলো গোটা শহরটাই
ফিরবো বাড়ি শান্তমত, তার আগেতে

 

"যুদ্ধাপরাধীর কঠোরতম শাস্তি চাই।"

একটি হতে কি পারত না আর সব ঘটনার মত এটি

 সকালে ফুরফুরে মেজাজ নিয়ে ঘুম থেকে উঠেছিলাম। কি কুক্ষনেই না ফেসবুক টা খুলেছিলাম খুলেই দেখি রাঙ্গামাটিতে মারামারি চলছে । যিনি দিয়েছেন তাকে জিজ্ঞেস করলাম কি হইয়েছে । বিভিন্ন জনের আপডেট থেকে জানলাম আমার পরিচিত অনেক এ আহত । শুনেই মনটা খারাপ হল । সব চাইতে খারাপ হচ্ছে উপজেলা পরিষদে আজ উপজেলা চেয়ারম্যানদের মিটিং হচ্ছিল । সেখানে সেটেলাররা গিয়ে হামলা করে। দুঃখের ব্যাপার হচ্ছে এটি রাঙ্গামাটি সেনানিবাসের একদম কাছে অথচ তারাই তো সবচাইতে নিরাপদে থাকার কথা তাহলে এটি কেন হবে ?

স্টপ বিএসএফ! স্টপ!

এশিয়ান কাপ ক্রিকেটে ভারত-বাংলাদেশ খেলা চলছে। চরম উত্তেজনা। ধন্য হলো মিরপুর মাঠ। এই মাঠেই শচীন হাকলেন একশ তম  সেন্চুরি। গড়লেন ইতিহাস। স্বাক্ষী রইলো মিরপুর স্টেডিয়াম। স্বাক্ষী বাংলাদেশ। যারা মাঠে বসে সরাসরি খেলা দেখছেন, তারা ইতিহাসের দুর্লভ মূহুর্তটি উপভোগ করলেন প্রাণভরে।...

এর আগেই হঠাৎ চমকে ওঠার মতো ঘটনা ঘটে গেছে। খেলায় রাজনীতি টানা উচিত নয়। এরপরেও দেশ-বিদেশের গণমাধ্যমে প্রচার পাওয়ার চিন্তায় প্রতিবাদী কয়েক তরুণ গ্যালারির এক অংশে উঠে দাঁড়ালেন। লাল-সবুজ পোষাকের দামাল ছেলের দল প্ল্যাকার্ড উঁচিয়ে বললেন:

স্টপ বিএসএফ ব্রুটালিটি!

ম্যাজিক মুভমেন্টের প্রতিবাদ সভা : ১৫ অক্টোবর সকাল ১০টায় শাহবাগে

সম্প্রতি সৌদি আরবে ৮ বাংলাদেশীকে শিরচ্ছেদ করা হয়েছে। আরও পাঁচজন বাংলাদেশীর মৃত্যুদন্ডও খুব শীঘ্রই একই পদ্ধতিতে কার্যকর করা হবে বলে খবর বেরিয়েছে। এই ঘৃণ্য, অমানবিক বর্বরতার বিরুদ্ধে আমরা একটি প্রতিবাদ কর্মসূচী করতে যাচ্ছি।

তারেক মাসুদ: 'পুরুষ জীয়ে না', জীবন জীয়ে না


তারেক মাসুদ অপঘাতে মারা গেলেন। আলমগীর কবীর অপঘাতে মারা গেছেন। জহীর রায়হান অপঘাতে মারা গেছেন। অপচিকিতসায় ভুগে আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের মৃত্যু দ্রুততর হয়। অপঘাত থামিয়ে দিয়েছিল মোনাজাতউদ্দিনকেও। হুমায়ুন আজাদও বাঁচতে পারেননি। শহীদুল জহীরের নি:সঙ্গতা ঘনিয়ে আনে হার্ট অ্যাটাক। ক'দিন আগে সমুদ্রে ডুবে মারা গেলেন তিন শিল্পী। কেউই তাদের কাজ শেষ করে যেতে পারেননি। অসমাপ্ত সংগীতের বেদনা, অসাধিত স্বপ্নের হতাশা আমাদের জীবনের আবহসঙ্গীত হয়ে বাজছে।

আমরা শোকাহত, আমরা ক্ষুব্ধ…

আমরা** গভীরভাবে শোকাহত এবং ক্ষুব্ধ । বিশিষ্ট সান্তাল আদিবাসী লেখক, সহব্লগার মিথুশিলাক মুরমু’র [লিংক] বিধবা স্কুল শিক্ষক বোন মরিয়ম মুরমুকে (৫৫) গত রোববার সন্ত্রাসীরা রাজশাহীর গ্রামের বাড়িতে গণধর্ষন ও বিভৎস শাররীক নির্যাতনের পর হত্যা করেছে। পৈশাচিক ঘটনাটি এখান্ই শেষ নয়, হত্যার পর সন্ত্রীরা আদিবাসী বোনটির নগ্ন লাশ গাছে ঝুলিয়ে রেখ