slideshow 1 slideshow 2 slideshow 3

You are here

মতামত ও পরামর্শ

উন্মোচনের প্রধান শক্তি ব্লগাররা। ব্লগারদের পরামর্শ ও মতামতের ভিত্তিতেই উন্মোচনের পরিবর্তন ও উত্তরণ সম্ভব। ব্লগারদের কাছে তাই আহ্বান- কারিগরি, নীতিনির্ধারণীসহ উন্মোচনের সব বিষয়ে আপনাদের মতামত ও পরামর্শ এখানে জানান।

12345
Total votes: 1051

মন্তব্য

বিপ্লব রহমান-র ছবি

@ বন্ধু,

নিজস্ব ব্লগ পোস্ট সম্পাদনার সুযোগটি কী বন্ধ রয়েছে?

আমার মতে, যে কোনো কারণে হোক, লেখকের পোস্ট সম্পাদনার সুযোগ কোনমতেই বন্ধ করা উচিৎ নয়। বাংলা ব্লগ সাইটে এই সুযোগ বন্ধ করা হলে উন্মোচন একটি বাজে নজির তৈরি করবে মাত্র।

লেখকের লেখা সম্পাদনার স্বাধীন সুযোগটি রেখে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও মান সম্মত প্রতিটি ব্লগ সাইটেই এই সুযোগ চালু রয়েছে। কোনো ব্লগার এর অপব্যবহার করলে তা দেখার জন্য বন্ধু/সঞ্চালক/মডারেটর তো বটেই, এমনকি সহব্লগাররা তো আছেনই।

 মতামত/ পরামর্শের এই বিভাগটির জন্য বন্ধুকে অনেক ধন্যবাদ।  

শশাঙ্ক বরণ রায়-র ছবি

বিপ্লব দা, আমার যতদূর মনে আসছে, আগের একটি পোস্টে আমার প্রস্তাবের উত্তরে আপনি সম্পাদনার সুযোগটি বন্ধ রাখতে বলেছিলেন। কারণও ব্যাখ্যা করেছিলেন। আমি আপনার যুক্তি মেনে নিয়েছিলাম।

........................................................

আদিবাসী বাঙ্গালী যত প্রান্তজন
এসো মিলি, গড়ে তুলি সেতুবন্ধন

বিপ্লব রহমান-র ছবি

উহু...বুঝতে ভুল করেছেন।


এর আগের আলোচনায় আমি পোস্ট নয়, শুধু মন্তব্য সম্পাদনার সুযোগ বন্ধ রাখতে মত দিয়েছিলাম। মুক্তমনা ডটকম-এর উদাহরণ দিয়ে বলেছিলাম, সেখানে মন্তব্য সম্পাদনার পর 'আপত্তিকর মন্তব্যদাতা' অভিযোগ অস্বীকার করলে গোল বেধেছিল। সেই থেকে অনেক আলাপ-আলোচনার পর মুক্তমনা কর্তৃপক্ষ মন্তব্য সম্পাদনার সুযোগ বন্ধ করে দেয়।  


অনেক ধন্যবাদ।

শশাঙ্ক বরণ রায়-র ছবি

সরি, একটু বেশি বোঝার জন্য! 

........................................................

আদিবাসী বাঙ্গালী যত প্রান্তজন
এসো মিলি, গড়ে তুলি সেতুবন্ধন

বিপ্লব রহমান-র ছবি
বিপ্লব রহমান-র ছবি

এতোদিন ধরে ব্লগ পাতায় সার্চ ইঞ্জিনের বিশেষ প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হচ্ছিল। এখন এই সার্চ ইঞ্জিন/ অনুসন্ধান ফিচারটি যোগ করায় ব্লগ টেকিদের সাধুবাদ জানাই। শাবাশ! 
 

আজাদ-র ছবি

বন্ধুগণ, পোষ্টটি স্টিকি করা হউক।

যে কোনো কারণে হোক, লেখকের পোস্ট সম্পাদনার সুযোগ কোনমতেই বন্ধ করা উচিৎ নয়। বাংলা ব্লগ সাইটে এই সুযোগ বন্ধ করা হলে উন্মোচন একটি বাজে নজির তৈরি করবে মাত্র।

একমত........

শশাঙ্ক বরণ রায়-র ছবি

এইটা খুব কাজে লাগবে। ধন্যবাদ।

........................................................

আদিবাসী বাঙ্গালী যত প্রান্তজন
এসো মিলি, গড়ে তুলি সেতুবন্ধন

যূথচারী-র ছবি

লেখকের পোস্ট সম্পাদনা অপশনটি অবশ্যই থাকতে হবে এমনকি লেখক যদি পোস্ট ডিলিট করতে চান, তবে তা-ও করতে পারেন। পোস্টের মন্তব্যগুলো যেহেতু সংশ্লিষ্ট মন্তব্যকারীদের অধিকার, তাই পুরোপুরি ডিলিটের বদলে কেবল পোস্টের মূল অংশ ডিলিট করার বিষয়টি রাখা যেতে পারে, যেমনটি এ্যাপোলো ভাই করেছেন। এ্যাপোলো ভাইয়ের নিজ পোস্ট সরিয়ে নেয়ার অধিকারকে আমি সমর্থন করি; তবে যারা এই ধরনের কাজ করেন, তাদেরকে (যেমন- পদাতিক, এ্যাপোলো) চিরতরে উন্মোচন থেকে ব্লক করে দেয়া উচিৎ বলে মনে করি, এমনকি আইপি-ও ব্লক করে দেয়া যেতে পারে।

আর মন্তব্য সম্পাদনা বা ডিলিটের কোনো অপশনই থাকা উচিৎ নয়। মন্তব্য করার আগেই ভেবেচিন্তে মন্তব্য করা উচিৎ। বিরোধী/ভিন্ন মত প্রকাশের ক্ষেত্রে মন্তব্যকারী যদি মূল লেখার একটা স্ক্রীন শট মন্তব্যে যুক্ত করে দেন, তবে আরো ভাল হয়।


রানওয়ে জুড়ে পড়ে আছে শুধু, কেউ নেই শূন্যতা-
আকাশে তখন থমকে আছে মেঘ,
বেদনাবিধুর গীটারের অলসতা-
কিঞ্চিৎ সুখী পাখিদের সংবেদ!
বিপ্লব রহমান-র ছবি


এ্যাপোলো ভাইয়ের নিজ পোস্ট সরিয়ে নেয়ার অধিকারকে আমি সমর্থন করি; তবে যারা এই ধরনের কাজ করেন, তাদেরকে (যেমন- পদাতিক, এ্যাপোলো) চিরতরে উন্মোচন থেকে ব্লক করে দেয়া উচিৎ বলে মনে করি, এমনকি আইপি-ও ব্লক করে দেয়া যেতে পারে।


কোনো পোস্ট মুছে ফেলা বা নিজের ব্লগে সরিয়ে ফেলা হলে পোস্টদাতা/লেখকের উচিৎ হবে সহব্লগারদের কাছে এর ব্যাখ্যা/কৈফিয়ত দেওয়া, এটি সংশ্লিষ্ট পোস্টের মন্তব্যের ঘরেই হতে পারে বা পৃথক পোস্টেও হতে পারে। বন্ধুর উচিৎ হবে এ বিষয়ে বাধ্যবাধকতা তৈরি করা। অন্যথা হলে বিভিন্ন ধরণের শাস্তিমূলক বিষয় ভাবা যেতে পারে।


পৃথক পোস্টে পূর্বতনপোস্ট মুছে ফেলার ব্যাখ্যা/কৈফিয়ত পদাতিক দিয়েছেন, যে জন্য তাকে ধন্যবাদ; কিন্তু পোস্ট মুছে ফেললে গুরুত্বপূর্ণ মতামতগুলোও মুছে যায় বলে তিনি পোস্টটি একেবারে মুছে না ফেলে উন্মোচনেই নিজের ব্লগ পাতায় সরিয়ে রাখতে পারতেন। 


অ্যাপোলো/পদাতিক -- এই দুয়ের মধ্যে সেদিক থেকে অ্যাপোলো আবার মন্দের ভালো, তিনি পোস্ট মুছে ফেললেও মন্তব্যসহ পুরো পোস্টগুলোই উড়িয়ে দেননি। তিনি আবার এ জন্য পদাতিকের মতো কোনো ব্যাখ্যা/কৈফিয়তের ধার ধারেননি।


যাইহোক। বটম লাইনে আরেকবার জানাই:


 আমার মতে, একটি লেখা পর্যায়ক্রমে শ্রীবৃদ্ধি, তথ্য ও ছবি হালনাগাদ-- ইত্যাদি প্রয়োজনে লেখকের সম্পাদনা/পরিমার্জন/পরিবর্ধনের প্রয়োজন হতেই পারে। এ জন্য লেখা/পোস্ট সম্পাদনার সুযোগ থাকা জরুরি। এর অন্যথা মানে লেখকের লেখার ওপরেই দশমনি বোঝা চাপিয়ে দেওয়া, লেখার বিকাশে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ানো।


তবে লেখক যদি তার লেখা/পোস্ট সম্পাদনার সুযোগটি অপব্যবহার করেন, (যেমন -- অ্যাপোলো/পদাতিক দুজনই) সেক্ষেত্রে শাস্তির কথা ভাবা যেতে পারেই। 


আবার ভিন্ন আঙ্গিকেও বিষয়টি ভেবে দেখার অবকাশ রয়েছে। ... বছর পাঁচেক আগে ব্লগ ধারণা মূর্ত হওয়া আগেই সামহোরিনে ব্লগিং করতে গিয়ে আমি নিজেই কুৎসিত ব্যক্তি আক্রমণের মুখে একাধিকবার পোস্ট মুছে দিতে বাধ্য হয়েছিলাম; তখনো সামুতে নিজস্ব ব্লগে আপত্তিকর মন্তব্য  মুছে ফেলা বা আপত্তিকর ব্লগারকে ব্লক করার সুযোগ তৈরি না হওয়ায় এটি করা ছাড়া উপায় ছিলো না।...


অন্যদিকে আরিফ জেবতিক ও অমি রহমান পিয়াল দুর্বল লেখা বলে বা অভিমান/ক্ষোভজনিতকারণে বা অন্য কোনো কারণে  নিজস্ব একাধিক ব্লগ পোস্ট/লেখা সচলায়তন থেকে মুছে দিয়েছেন, কেউ সেটা নিয়ে তখন উচ্চবাচ্চ করেননি। ...


নি:সন্দেহে বাংলা ব্লগ এখন সামু বা সচল যাত্রা থেকে আরো অগ্রগামী, তাই বটম লাইনে মোটা হরফে ওই কথাগুলো বলা। 


অনেক ধন্যবাদ।   চলুক।

শশাঙ্ক বরণ রায়-র ছবি

পোস্ট সম্পাদনার সুযোগ থাকুক, মন্তব্য সম্পাদনার সুযোগ না থাকুক। তবে, পোস্ট মুছে দেয়ার ক্ষেত্রে লেখক যাতে অন্তত মোছার কারণটা ব্যাখ্যা করেন - সেটা দাবি করাই যায়। না, একেবারে ব্লক করে দেয়া নয়। আমি প্রস্তাব করছি, নীতিমালায় বিষয়টি যুক্ত করে দেয়া হোক। লেখক পোস্ট মুছে ফেললে তাকে সেই পোস্টেই কারণ ব্যাখ্যা করতে হবে। এটা নীতিমালায় যুক্ত করার পর কেউ অমান্য করলে শাস্তির বিষয়টি ভাবা যেতে পারে।

........................................................

আদিবাসী বাঙ্গালী যত প্রান্তজন
এসো মিলি, গড়ে তুলি সেতুবন্ধন

এইডা তুমি কী কইলা যূথচারী? এই অকাম তো আমিও সচলায়তনে করছিলাম। কিন্তু ওরা তো আমারে খেদাইয়া দেয় নাই। যথেষ্ট উদারতার সাথেই নিছে। তুমি আসলে ব্লগের পক্ষ হইয়া ভাবতাছো বইলা এইভাবে ভাবতে পারতাছো। কিন্তু আমি সব সময়ই মনে করি লেখকের লেখা পোস্ট করা বা তুইলা নেওয়ার স্বাধীনতা থাকা উচিত। হোক তা ছেলেমানুষী বা অভিমানউদ্ভূত বা অন্য যে কোনো বিষয় আশয়ের ঘেরাটোপে ঘেরা। আসলে কিড়েটিপ নুকজনরে এই স্বাধীনতা তুমার দিতেই হইব। নইলে কিরেটিভীতি পাইবা কই? এ্যাপোলো, পদাতিক কিম্বা সবুজ বাঘের ন্যায় ব্লগাররা হয়তো ব্লগের তেইশ মারে কিন্তু তাগো চব্বিশ মারার ন্যায় অনুদারতা তো প্রতিষ্ঠান হিসাবে ব্লগ দেখাইতে পারে না। আশ্রয়দাতা মাতার ন্যায় ব্লগের আসলে অনুদার হওয়ার সুযোগ নাই বললেই চলে। এক্ষেত্রে তাকে সহ্য করার ভিতর দিয়াই আইগাইতে হইব। আখেরে জয় তারই।

বিপ্লব রহমান-র ছবি

এ্যাপোলো, পদাতিক কিম্বা সবুজ বাঘের ন্যায় ব্লগাররা হয়তো ব্লগের তেইশ মারে কিন্তু তাগো চব্বিশ মারার ন্যায় অনুদারতা তো প্রতিষ্ঠান হিসাবে ব্লগ দেখাইতে পারে না।

হুমম...

বিপ্লব রহমান-র ছবি

নিজস্ব লেখা সম্পাদনার ব্লগাধিকার ফিরিয়ে দেওয়ায় বন্ধুবরেষুকে জানাই অশেষ ধন্যবাদ। জয়তু উন্মোচন!

যিশু মহমমদ-র ছবি

কমেন্ট বক্সের ক্ষেত্রে 'পছন্দ' ও 'অপছন্দ' করার বুড়ো আঙ্গুল উঁচিয়ে ধরা আর নিচু করে ধরার একটা বোতাম হলে ভালো হয়। এতে ভবিষ্যতে দেখা যাবে আলোচনায় সকলে সাবধানী হয়ে কমেন্ট করছে। মতামত দিচ্ছে।
আর উন্মোচনে 'অ্যাকাউন্ট নাই' অথচ পাঠক কমেন্ট করে অংশগ্রহন করতে পারছে সেই সুযোগ কি রাখা যায়? এতে তর্ক বিতর্কের সুযোগটা আগায়। স্রেফ যিনি 'পাঠক' তার মতামত দেবার ক্ষেত্রে থাকা উচিত, এর জন্য অ্যাকাউন্ট খোলা জরুরী নয়। কেননা, তিনি লেখালেখি করেন না।

বিপ্লব রহমান-র ছবি

 কমেন্ট বক্সের ক্ষেত্রে 'পছন্দ' ও 'অপছন্দ' করার বুড়ো আঙ্গুল উঁচিয়ে ধরা আর নিচু করে ধরার একটা বোতাম হলে ভালো হয়।

 

দ্বিমত পোষণ করছি। এতে পরের মন্তব্যগুলো প্রভাবান্বিত হ্ওয়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে। 

উন্মোচনে 'অ্যাকাউন্ট নাই' অথচ পাঠক কমেন্ট করে অংশগ্রহন করতে পারছে সেই সুযোগ কি রাখা যায়? 

এই সুযোগ তো আছেই। প্রচুর অতিথি পাঠকরা মন্তব্য্ও করছেন। 
 
তবে আমার মতে, মন্তব্যের ঘরে কি-বোর্ড লাগালে মন্তব্যকারীর সংখ্যা আরো বেড়ে যাবে। বর্তমান ব্যবস্থায় অভ্র-ফোনেটিক ছাড়া অন্য কি-বোর্ডে (যেমন-- বিজয়, ইউনিজয়) বাংলায় মন্তব্য করা কঠিন।
 
চলুক।  

মির্জা গালিব-র ছবি

ব্যাকগ্রাউন্ডের সাদা রঙটা প্রচণ্ড রকম চোখে লাগে। আগে যেমন হালকা ছাই একটা রঙের ব্যাকগ্রাউন্ড ছিল, সেটা থাকলেই ভাল।

বর্তমান অবস্থায় নিয়মিত উন্মোচন দেখা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব না। তবে উন্মোচনের পক্ষ থেকে থেকে যদি চশমার দাম দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়, তবে পুর্নবিবেচনা করতে পারি।

...  ...  ...  ...  ...  ...  ...  ...  ...  ... ...
আমি একটি কথা বললেই তুমি বলো- কে তুমি?
আমি বলি, তুমিই বলে দাও- কেন এই কথোপকথন! (মির্জা গালিব)

বিপ্লব রহমান-র ছবি

 প্রতি লেখায় শেয়ারিং অপশন (ফেসবুক, টুইটার, গুগল ইত্যাদি) বাটন যোগ করায় ব্লগ টেকিদের সাধুবাদ জানাই।
তবে বাটনগুলোর আকৃতি বড্ডো বেশী চোখে লাগে, এগুলো আরো ছোটমাপের হলে ভাল হয়। আরো ভাল হয়, যদি এসব শেয়ারিং বাটন লেখার নীচে যোগ করা হয়। ধন্যবাদ।
---
পুনশ্চ: ভালর কোনো শেষ নাই। তাই ভালয় ভালয় চলুক।  

মতামতের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

বাই ডিফল্ট, বাটনের আকৃতিগুলো ছোটই আছে এবং শেয়ার বাটনটিও লেখার নিচেই।

তবে এই মুহূর্তে পরিচিত করার জন্য একটু বড় আকারের বাটন দেয়া আছে, যা দু'একদিনের মধ্যেই ছোট করে ফেলা হবে।

আর দেখেন বেশিরভাগ লেখাতেই লিংকটা লেখার নিচেই, শুধু যেসব লেখার শুরুতে অতিরিক্ত স্পেস আছে বা ছবি দিয়ে লেখা শুরু হয়েছে, সেসব ক্ষেত্রে এটা ওপরে দেখাচ্ছে। এর কারণ অনুসন্ধান করছি। সমাধান হয়ে যাবে আশা করি।

বিপ্লব রহমান-র ছবি

 আরো নানানপদের কিছু স্মাইলি এড করা হোক,এই কয়টা দিয়া ঠিক শান্তি হইতাছে না।

বিপ্লব রহমান-র ছবি

 @ বন্ধু, আসিফের সন্মানে নতুন একটি ব্যানার চাই! 

বিপ্লব রহমান-র ছবি

 @ সাধু জী, কিছু মনে করবেন না, আপনি কী সুশীল? যদি তাই হন, তাহলে ভুল জায়গায় এসে পড়েছেন ভাই। একটু গুগল হাতড়ালেই অনেক সুশীল ব্লগ কাম সাহেব বাবুর বৈঠকখানা পাবেন। সেখানে কোয়ার্টার/হাফ/ফুল সদস্যপদ নিয়ে ঝুলে পড়ুন না। আপনাকে বারণ করেছে কে? AJOB!!
---
পুনশ্চ: সুশীল ব্লগ বারান্দায় রোমানে বাংলা লেখা কিন্তু একদম নিষেধ। (খুব খেয়াল করে) 

বিপ্লব রহমান-র ছবি

 এখন আমার কথা হল এটা কি লেখা প্রকাশের স্বাধীনতা না স্বাধীনতার চুরান্ত অপব্যবহার???? আমি এই মন্তব্য গুলো ও সবুজ বাঘ এর জন্য ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানাই।

@ md.nure alam shadhu, কিছু মনে করবেন না, আপনি কী সুশীল? যদি তাই হন, তাহলে ভুল জায়গায় এসে পড়েছেন ভাই। একটু গুগল হাতড়ালেই অনেক সুশীল ব্লগ কাম সাহেব বাবুর বৈঠকখানা পাবেন। সেখানে কোয়ার্টার/হাফ/ফুল সদস্যপদ নিয়ে ঝুলে পড়ুন না। আপনাকে বারণ করেছে কে? AJOB!! 

নতুন ডিজাইন সুন্দর লাগছে। বিশেষ করে বাংলা ফন্ট এখন অনেক ভালো পড়া যাচ্ছে। শুধু রোমান সংখ্যাগুলো বাংলায় করলেই ষোলকলা পূর্ণ হয়।

বিপ্লব রহমান-র ছবি
'ভারতীয় বাঙালি বুর্জোয়া জমিদার কবি ররীন্দ্রনাথ' (!!) এর আবিস্কারক, 'আগামী দিনের জাতীয় সংগীত' (ইহা হয় কী বস্তু?) এর রচয়িতা, স্বঘোষিত কবি ও গীতিকার শফিকুল ইসলাম, ওরফে এস.  ইসলামের সংশ্লিষ্ট পোস্টটি মুছে দেওয়ার জন্য বন্ধুকে ধন্যবাদ জানাই। 
 
বিনীত অনুরোধ এই মহানের সমস্ত পোস্ট মডারেশনের আওতায় নিয়ে আসার। 
 
চলুক।
 
 

 

কোঁনও কিছু মডারেশনের আওতায় আনা হইলে (যেমন কারো পোষ্ট মডারেটর ডিলিট করলে... ইত্যাদি) তার কারন ব্যখ্যা করে সেই সম্পর্কিত এক্টা লগ রাখলে ভাল হয়।

হাহাহা, অদ্ভুত ব্যপার, এক ই কাজে দুই জন একই সময় একজায়গায় কিভাবে আসলাম? মজার কাকতাল। আমার এইখানে এখন ভোর সাড়ে পাঁচটা !

যারা অনলাইনে থাকেন তাদের নিজেদের মধ্যে মত বিনিময়ের সুযোগ নেই।
ব্লগাড্ডা নামে কোন সুযোগ তৈরী করা যায়?

..................................................

মাঝে মাঝে পিপাসা বোধ হচ্ছে
গন্তব্যহীন পথ, তপ্ত রদ্দুর
নগ্ন পায়ে হাটছি আমি

সোহাগ আল ইমরান-র ছবি

আমার এই লেখাগুলো পড়ুন... তেলে ভাজা কড়মড়ি(১)  &  তেলে ভাজা কড়মড়ি(২)

MLM business সম্পর্কে লেখ।... আশা করি সকলে পড়বেন... & সবাইকে জানাবেন... উন্মোচন কে ধন্যবাদ আমাদের বিষয়গুলো খুব সহজে সকলের কাছে জানাতে পারছি বলে...

Iইমরান

৮. সাম্প্রদায়িকতা, অশ্লীলতা, জাতি-ধর্ম-বর্ণ-লিঙ্গ, সাংস্কৃতিক বা ভাষাগত বিদ্বেষ প্রকাশ করা যাবে না।

এই নীতিতে একটু প্রবর্তনের আহবান জানাচ্ছি।
ইদানিং জনৈক ব্লগার কুসংস্কার রটিয়ে যাচ্ছেন। এই জিনিস টি কিঢুকানো যায়?

..................................................

মাঝে মাঝে পিপাসা বোধ হচ্ছে
গন্তব্যহীন পথ, তপ্ত রদ্দুর
নগ্ন পায়ে হাটছি আমি

বাঁটুল দি গ্রেট-র ছবি

 উন্মোচনে মন্তব্যে জমজমাট আলোচনা না হবার একটা প্রধান কারণ, আমার মতে, কোন পোস্টে মন্তব্যের পর তা ফলো করার কোন ব্যাবস্থা না থাকা। এ ব্যাপারে মডু দের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি... 

সাহাদাত উদরাজী-র ছবি

আমি আজ থেকে উন্মোচন পড়ছি। আরো পড়ে দেখি। তবে ভাল লাগছে...।

শশাঙ্ক বরণ রায়-র ছবি

স্বাগতম! পড়ুন, মতামত দিন এবং লিখুন।

........................................................

আদিবাসী বাঙ্গালী যত প্রান্তজন
এসো মিলি, গড়ে তুলি সেতুবন্ধন

বিপ্লব রহমান-র ছবি

 @ বন্ধু/অ্যাডমিনের দৃষ্টি আকর্ষন করছি। উন্মোচনের মতো একটি কমিউনিটি ব্লগ সাইটে এই পোস্টে দেওয়া এমন বিভৎস ছবি মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। ছবিটি অবিলম্বে সরিয়ে ফেলা হোক। 

http://unmochon.net/node/1929

বিপ্লব রহমান-র ছবি

বন্ধুর দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

০১. জনৈক সহ ব্লগার আবিদুল ইসলাম একের পর এক পোস্ট দিয়ে প্রথম পাতায় ফ্লাডিং করছেন। এই মুহূর্তে প্রথম পাতায় তার চার-চারটি ব্লগ পোস্ট শোভা পাচ্ছে। 

http://www.unmochon.net/blog/1580

কিছুদিন আগে এই সব্যসাচি লেখক উন্মোচনের প্রথম পাতায় একই সঙ্গে পর পর পাঁচটি ব্লগ পোস্ট দিয়ে ফ্লাডিং করেছেন।

০২. একই সঙ্গে দেখা যাচ্ছে অন্যের লেখা পাঠেও তার দীর্ঘ অনীহা। কোনো পোস্টেই তিনি পারতঃপক্ষে মন্তব্য করেন না, আলোচনায় অংশ নেন না-- এমনকি নিজের পোস্টেও। ওনার শুধু প্রথম পাতায় পোস্ট দেওয়াতেই আনন্দ! 

স্পষ্টতই এটি ব্লগীয় দেশ্চারের পরিপন্থী। বার বার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলেও আরেক সহব্লগার নিরন চাকমাসহ অনেকেই একই কাজ করছেন। তাদের অধিকাংশই ব্লগ বারান্দায় নবগত। 

--লক্ষ্যনীয়, কারো লেখার মান ভালো বা খারাপ -- তা বিবেচ্য নয়।

এ অবস্থায় সুষ্পষ্ট প্রস্তাব:

০১ নং সমস্যা সমাধানে প্রথমেই আবিদুল ইসলামের দুটি পোস্ট ছাড়া বাকীগুলো প্রথম পাতা থেকে সরানো হোক। তাকে ব্যক্তিগত ইমেইলে সতর্ক বার্তা দেওয়া হোক। এই সতর্ক বার্তা উপেক্ষা করে আবারো ফ্লাডিং করলে তার সমস্ত লেখা মডারেশনের আওতায় আনা হোক। 

০২ নং সমস্যা সমাধানে নতুন সদস্যদের নীতিমালার পাশাপাশি অন্যের নোট/ব্লগ পোস্ট পড়ার বিষয়ে ইমেল দেওয়া যেতে পারে। ব্লগ মিথস্ক্রিয়া বাড়াতে স্টিকি পোস্ট-পদ্ধতি নিয়মিত চালু করা হোক। একদম শুরু থেকে এ বিষয়ে উন্মোচনে যথেষ্টই ঘাটতি আছে বলে মনে হচ্ছে। 

আপাতত এইটুকু। অনেক ধন্যবাদ। 

মন্তব্য