slideshow 1 slideshow 2 slideshow 3

You are here

রকমারি ই বুক লাইব্রেরী

রকমারি ই বুক লাইব্রেরী
লেখক-হাসান মাহমুদ
প্রকাশক- জামসেদ (লেখকের অনুমোদন ক্রমে)
সূত্র- http://www.rokomari.com/all-reviews/27593?sort=latest
রকমারি ই বুক লাইব্রেরীর বুক সেলফে “শরিয়া কি বলে আমরা কী করি” উপরের লিংক এর মাধ্যমে সে কেহ ঘরে বসে সংগ্রহ করতে পারেন।খুব সুন্দর ব্যবস্থা। বাংলা দেশে এত সুন্দর ব্যবস্থা হয়েছে আমার ও জানা ছিলনা।

এ যেন আমেরিকার AMAZONE কোম্পানী।অবশ্য আমেরিকায় এরুপ আরো বহু কোম্পানী আছে।NEW EGG এদের মধ্যের একটা। ধরা যাক কম্পিউটার প্রিন্টারের কালী ফুরিয়ে গেছে। কম্পিউটারে অর্ডার দিয়ে দিলেই ৩ দিনের মধ্যে কালী ঘরের দরজায় পৌছে যায়। এভাবে অন লাইন ক্রয়ে দ্রব্যের মান ও ভাল থাকে ও অনেক শাশ্রয় হয়।

“শরিয়া কি বলে আমরা কী করি” এটা সবার এক দেখার দরকার আছে। আমাদের সমাজে ধর্ম টা সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ও বড় ইসু।

কী করে বড় ইসু? তাহলে দেখুন। ৯/১১ এর পর আমি একজন ইমাম সাহেবকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, হযরত লাদেন (রহ) টুইন টাওয়ারে আঘাত করে কী ঠিক কাজ করেছে?

তিনি জোর গলায় উত্তর দিলেন “ লাদেন যা করেছে সঠিক কাজটি করেছে।সে ইমাম মেহেদী। সে সব কিছু ইছলামের জন্য করতেছে”।

তার কথায় এমন মনে হল যে, লাদেন যদি আমেরিকাকে ধংশের উদ্যেশ্যে তার পরিবার বর্গকে বোম মেরে উড়িয়ে দেয়, তবুও হযরত লাদেন সঠিক পথে আছে।

শারিয়া আইন ও তদ্রুপ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মুসলমানদের নিকট।
ইমামদের নাম দিয়ে প্রায় ৫,৬ হাজারের মত আল্লাহর দেওয়া আইন বা শারীয়া আইন বলে চালিয়ে দেওয়া আইন যে কোরান হতে লওয়া হয় নাই বা এমন কী কিছু কিছু আইন কোরানের বিরুদ্ধও যায় তা জানতে আপনার কৌতুহল হয় কী? তাহলে আজই পড়ুন "শারিয়া কি বলে আমরা কি করি" বইটি ।

সঠিক ইসলামকে জনগনের মধ্যে তুলে ধরার লক্ষ্যে, এই বইটিকে অনেক কওমী টাইটেল (দাওরা) পাশ ইমামেরা বর্তমানে তাদের ওয়াজের বক্তৃতার অন্তর্ভূক্ত করে লয়েছেন।
নীচে একজন তদ্রুপ জাদরেল আলেম ও ইমামের বইটির উপর মন্তব্য দেখতে পারেন-

মাওলানা আসাদ আহমদ (ইমাম ও খতিব)এর মন্তব্য-


”মাননীয়,

হাসান মাহমুদ আহলে ছুন্নাত ওয়াল জামাতের অনুসরন করে দ্বীনের খেদমত করে যাচ্ছেন । পশ্চিমা বিশ্বে কানাডার মুসলমানদের কাছে, বিশেষ করে বাংলাভাষী মুসলমানদের কাছে জনাব হাসান মাহমুদ লেখালেখি জগতের এক সুপরিচিত নাম। দ্বীনি দরদ নিয়েই লেখালেখি করছেন সবচেয়ে বেশী। পশ্চিমে গিয়ে বসবাসকারী মুসলমানদেরকে বিশেষ করে তাদের নতুন প্রজন্মকে ইসলামের বুনিয়াদী সম্পর্কে জ্ঞান দানের দরদ নিয়েই রচনা করেছেন “শারিয়া কি বলে আমরা কি করি” নামক বই খানা। বইখানাতে যে সব বিষয় স্থান পেয়েছে, একজন মুসলমানের জন্য মুসলমান হিসাবে জীবন যাপন করতে হলে সবগুলো বিষয়ই জানা অবশ্যই জরুরী।

আমার মতে “শারিয়া কি বলে আমরা কি করি” বই খানা প্রতিজন মুসলমানের নিত্য সঙ্গী হিসাবে রাখার মত একটি মূল্যবান বই।

অতএব এই বই এর আলোচনা সভা সমাবেশে করে থাকি। দোয়া করি যেন মহান রাব্বুল আলামিন লেখকের শ্রমকে কবুল ও মঞ্জুর করতঃ মুসলিম সমাজকে এতদ্বারা উপকৃত হবার ব্যবস্থা করে দেন।………………………………..আমিন।

দোয়াপ্রার্থী
মাওলানা আসাদ আহমদ (ইমাম ও খতিব)
জামেয়া ইসলামিক সেন্টার
উডহেভেন, নিউ ইয়র্ক,”

 

অনলাইনে বইয়ের সর্বাধিক সংগ্রহ নিয়ে রকমারি.কম ||ROKOMARI.COM||
www.rokomari.com
Rokomari.com is a Bangladeshi Online Shopping Portal for selling Book, eBook, Mobile Phones, computers and

 

12345
Total votes: 594

মন্তব্য

হযরত লাদেন (রহ)

হা হা হা হা হা...

মুসলমানদের এই অংশটিকে ওইসব ধর্মের কাহিনী শুনিয়ে লাভ নেই। তাদের উদ্দেশ্য পরিস্কার - চেঞ্জ দ্যা ওয়ার্ল্ড অর্ডার, বাই হুক অর ক্রুক।

আজাদ-র ছবি

রকমারি ডট কম একটি অনৈতিক বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান। আজকে নীহাররঞ্জন রায়ের বাঙ্গালীর ইতিহাস আদি পর্ব বইটি আমাকে তাঁরা সরবরাহ করেছে। বইটির ছাপার মান দেখে প্রথমেই এটাকে আমার পাইরেটেড মনে হয়েছে। আমি তাঁদেরকে ফৌন দিয়ে জানালাম যে এটা পাইরেটেড মনে হচ্ছে। উল্টো তাঁরা আমাকে জেরা শুরু করলো, যে আমি বুঝলাম কীভাবে এটা পাইরেটেড? আমি এই বইটা আগে দেখেছি কিনা? দাবী করলো তাঁরা এই বইটি সরাসরি দে'জ পাবলিশিং থেকে আমদানী করেছে।

দে'জ পাবলিশিং এর রফতানি বিভাগের দায়িত্বে থাকা ভদ্রলোকের সাথে আমার পূর্ব পরিচয় থাকায় উনাকে ফৌন দিয়ে জানতে চাইলাম, রকমারি বলে বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠানে তাঁরা সম্প্রতি এই বই রফতানি করেছে কিনা? উনি বললেন না। আমি উনাকে ঘটনা খুলে বললাম। উনি বইটি, বইটির ভাউচার এবং রকমারির মোড়ক দেখতে চাইলেন। আমি সব গুলো উনাকে ডি এইচ এল করে পাঠিয়ে দিলাম। দে' জ নিশ্চিতভাবে রকমারির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

এর পরে রকমারি থেকে বারে বারে ফৌন করে দুঃখ প্রকাশ করা হচ্ছে। বলা হচ্ছে ভুলে বলা হয়েছে যে বই আমদানী করা হয়েছে, বইগুলো আমির অ্যান্ড সন্স বলে ঢাকার একটি প্রতিষ্ঠান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।

আমি নিয়মিত বাতিঘর আর পাঠক সমাবেশ থেকে বই সংগ্রহ করলেও মাঝে মাঝে রকমারি থেকে বই কিনতাম, কারণ আমি চেয়েছি, এই অনলাইন বুক স্টোর টা টিকে থাকুক। এই কারণেই যখন ফারাবির হুঙ্কারে আর নাস্তিকদের বর্জনে রকমারির থরহরি কম্প অবস্থা তখন আমি রকমারির পক্ষে শক্ত ভাবে দাঁড়িয়েছি, এবং অনেকের সাথে বন্ধুত্ব বিদারী তিক্ত বিতর্কে লিপ্ত হয়েছি।

যে প্রতিষ্ঠান পাইরেটেড বই বিক্রি করে বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চার পিঠে ছুরি মারে, সেই প্রতিষ্ঠানের টিকে থাকার কোন অধিকার নেই। বই শুধু পণ্য নয়, বই মানেই আলোকিত মানুষ। বই মানেই আমাদের বুদ্ধিবৃত্তির মুক্তাঞ্চল। এই মুক্তাঞ্চলে রকমারির মতো অনৈতিক প্রতিষ্ঠানকে থাকতে দেয়া যায়না।

আপনি যদি পাইরেটেড বই কেনেন তবে একজন অনাগত লেখককে আপনি অজান্তেই হত্যা করবেন। আর যাদের মুনাফাই আসে এই অনাগত লেখক হত্যায় আসুন তাঁদের ঘৃণা করি। -পিনাকী ভট্টাচার্য্য

মন্তব্য